রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:১৩ অপরাহ্ন

কাউনিয়ার কূর্শা ইউনিয়নের সকলের দোয়া ও সমর্থন চেয়েছেন আলহাজ্ব মোহাম্মদ হোসেন সরকার।

মোঃ শাহাদত হোসেন বকুল রংপুর থেকে :
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২৪ বার পড়া হয়েছে
কাউনিয়ার কূর্শা ইউনিয়নের সকলের দোয়া ও সমর্থন চেয়েছেন আলহাজ্ব মোহাম্মদ হোসেন সরকার।

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন ইতিমধ‍্যে ঘোষণা করেছেন যে ২৩ শে সেপ্টেম্বর ২০২১ ইং সকল প্রকার বিধিবিধান মেনেই ইউ পি নির্বাচনের তফশীলের ঘোষনা বিষয়ে আলোচনা করা হবে। সেই সুত্র ধরেই এখন সারা দেশে চলছে নির্বাচনের ফুরফুরে প্রচার প্রচারণা। এলাকার বিভিন্ন বাজার, হাট, মসজিদ, মন্দির থেকে শুরু করে গ্রামে গ্রামে চলছে নির্বাচনের আলোচনা। বিভিন্ন প্রার্থী বিভিন্ন ভাবে তাদের নির্বাচনের অঙ্গীকার করছে বলে জনগণের মুখে সরব এখন প্রতিটি বাজারের টার্নিং পয়েন্টগুলো। জমে উঠেছে চা দোকান থেকে শুরু করে পানের দোকানেও ঐ একই আলোচনা। এক জনজরিপের মাধ‍্যেমে আমাদের প্রতিনিধি জানিয়েছেন,গতবারের মত এই ইউনিয়নে নৌকার মাঝি হতে চায় আলহাজ্ব মোহাম্মদ হোসেন সরকার। নৌকা প্রতীক নিয়ে তিনি গতবার বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছিলেন। তিনি ৩ নং কুর্শা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম নেছাব উদ্দিনের ছেলে। মরহুম নেছাব উদ্দিন ১৯৮৭ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি ছিলেন উক্ত ইউনিয়নের সকলের প্রিয় নেছাব চেয়ারম্যান। ছোট থেকে বড় সবাই তাকে সম্মান করতো নিজের অভিভাবকের মতই। দল বল নির্বিশেষে মরহুম নেছাব চেয়ারম্যান ছিলেন অত‍্যন্ত বিশ্বস্থ‍্য ও আস্থাভাজন এক সুনামধন‍্য চেয়ারম্যান। তিনি ২০০১ সালে মৃত‍্যবরণ করলে উপনির্বাচনে উনার ছেলে আলহাজ্ব মোহাম্মদ হোসেন সরকার বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। পরবর্তীকালে তিনি গত দুই বার একটানা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। চেয়ারম্যান থাকাকালীন সময়ে তিনি বিভিন্ন সমাজসেবা মুলক কাজের জন‍্য অনেক পুরুস্কার পান তার মধ‍্যে শেরে বাংলা এ কে এম ফজলুল হক স্মৃতি সম্মামনা, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী সম্মামনা পুরুষ্কার, বেগম রোকেয়া স্মৃতি পুরুষ্কার সহ কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান সম্মেলনে তিনি রংপুর জেলার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান হিসেবে পুরুষ্কার পান। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কাউনিয়া উপজেলা শাখার সিনিয়র সহ সভাপতি হিসেবে অনেক অবদান রেখে ইউনিয়নের সবার মন জয় করে বার বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হচ্ছেন। তিনি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সভাপতি হিসেবে কোন অনিয়ম ছাড়াই অনেক উন্নয়ন করেছেন বলে বিদ‍্যালয় প্রধান গন বলেন। তিনি বলেন এবারও যদি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে মনোনায়ন দেন, নৌকা মার্কা নিয়ে এবারও বিপুল ভোটে আমি নির্বাচিত হতে পারবো ইনশাআল্লাহ। আমাদের প্রতিনিধি একান্তভাবে ঐ এলাকায় জনগণের স্বাক্ষাতমুলক আলোচনা করে যে তথ‍্য পেয়েছেন তাতে আলহাজ্ব মোহাম্মদ হোসেন সরকার খুব ভালো মানুষ। দল মত নির্বিশেষে আমরা সবাই উনাকে উনার ভালো কাজের জন‍্য বার বার ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান বানাই এবং এবারে উনি আরও বিপুল ভোটের ব‍্যবধানে চেয়ারম্যান হতে পারবে ইনশাআল্লাহ। চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ হোসেন সরকার বলেন আমি বর্তমানে চেয়ারম্যান হিসেবে আছি জনগণই আমাকে ভোটে আবার চেয়ারম্যান মনোনীত করে এই কূর্শা ইউনিয়নের দায়িত্ব দিবেন এটা মহান আল্লাহ তায়ালার নিকট আমার প্রত‍্যাশা। কারন আমি আমার চেয়ারম্যান আমলে কোন দুর্নীতির সাথে সমপৃক্ত নই, অন‍্যায়ের সাথে আপোষহীন এক দায়িত্বশীল ব‍্যক্তি হিসেবে আমার মরহুম বাবার আদর্শে এই ইউনিয়নে বর্তমানের উন্নয়ন এর ধারা অব‍্যাহত রাখার জন‍্য অত‍্যন্ত সুহৃদয়ে চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ।তিনি আরও বলেন বর্তমানে কূর্শা ইউনিয়নে ডিজিটালের ছোঁয়া পেতে শুরু করেছে আমি এবারও যদি চেয়ারম্যান হতে পারি তাহলে রংপুরের স্বণামধন‍্য ইউনিয়ন হিসেবে এই ইউনিয়নকে বাংলাদেশের মানচিত্রে জায়গার ব‍্যবস্থার মত কাজ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ঘোষনা প্রত‍্যেক গ্রাম হবে শহরের মত এই শ্লোগানকে বাস্তবে রুপ দিতে আমি আপ্রাণ ভাবে কাজ করে যাব। তাই প্রিয় ৩ নং কূর্শা ইউনিয়ন বাসীর নিকট আমার একটাই দাবি আমাকে পুনরায় ভোটে চেয়ারম্যান হতে আপনাদের দোয়া ও সমর্থন আশা করছি। তিনি জোড়ালো ভাবে প্রচার প্রচারনায় নৌকার মাঝি হওয়ার জন‍্য, তিনি ইতিমধ‍্যেই বিভিন্ন এলাকায় জনগণের মাঝে দোয়া ও সমর্থন চেয়ে উঠান বৈঠক সহ নির্বাচনে গন‍্যমান‍্য ব‍্যক্তিবর্গের নিয়ে আলোচনা করছেন বলে আমাদের প্রতিনিধি জানিয়েছেন। তবে এলাকাঘুরে দেখা দেছে সকলের দোয়া ও দলীয় সমর্থন থাকলে তিনি পুনরায় চেয়ারম্যান হতে পারবেন।

সংবাদটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন....

এ বিভাগের আরো সংবাদ